ছাইমাখা আস্তরণ

0
74

“অবস্থান বুঝে আবারও ঠিক নেমে যাবে বর্ষা।” ভেসে যাওয়া ছাইমাখা আস্তরণের মেঘের মতো সুরশ্রী-র একথা বিঁধল স্নেহময়কে। কিছু মুহূর্ত থাকে, যখন নীরবতাই শ্রেয় হয়ে ওঠে। পিছে রয়ে যায় পড়ন্ত বিকেল। আসলে স্নেহময় এবং সুরশ্রী-র দাম্পত্য জীবন পাঁচ মাসের। পাঁচ মাসের একটি দিনেও তাদের দু-জনের মধ্যে ভালবাসার স্নিগ্ধ উষ্ণতার পরিসর তৈরি-ই হয়নি! বরং, স্নেহময় তার কবিতার জগতকে আরও বেশি করে ভাল বেসে ভাবের জগতে স্বচ্ছন্দে ডুব মেরেছে। সুরশ্রী বহু বার স্নেহময়-এর সঙ্গে এক ছোট্ট ভালবাসার পরিসর গড়ে তোলার চেষ্টা করলেও বারংবার তা ব‍্যর্থতায় পরিপূর্ণ হয়েছে।

“জোছনা নেমে আসে, কখনও পরিযায়ী/ বর্ষা ফিরে আসে বিরহে। জাহাজ বন্দর খোঁজেনি”।
স্নেহময়ের এই কবি সুলভ আচরণের মনমুগ্ধ কবিতার নেশায় উন্মাদিনী সুরশ্রী বলল, ”আকাশ ঢেকে আসে মেঘে, বয়ে চলে ঝোড়ো হাওয়া / তুমি ফিরে গেছ শব্দে, ছেড়ে ভালবাসা!”

এরপর আর কোনও কথা থাকে না। বাইরে ছাইমাখা অন্ধকার নেমে আসে। এদিকে পুরুষ জাহাজ মহাসমারোহে ফিরে যায় অব‍্যবহৃত নারী বন্দরে…।

কলমে- সুমন

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here